বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও কৃষক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাবেক এমপি মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু বলেছেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আটকে রাখা মানে গণতন্ত্রকে আটকে রাখা। তাকে মুক্ত করতে চাইলে, বিদেশে সুচিকিৎসার জন্য পাঠাতে চাইলে একমাত্র পথ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথে নামতে হবে। রাজপথে নামা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। এখন আমাদের আর ঘরে বসে থাকলে চলবে না। খালেদা জিয়ার কিছু হলে এর দায়ভার সরকারকে নিতে হবে।

তিনি বলেন, এ সরকার দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটকে রেখেছে। বিদেশে চিকিৎসা নিতে বাধা দিচ্ছে। অতীতে বহু স্বৈরাচারী সরকারে পতন হয়েছে, হাসিনা সরকারেও পতন হবে।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তার বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শুক্রবার বিকালে বগুড়া জেলা কৃষকদল আয়োজিত দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া গণতন্ত্রকে মুক্তি ও প্রতিষ্ঠা করেছেন, দিয়েছেন প্রাতিষ্ঠানিক রূপ। বাকস্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছিলেন। প্রথম ক্ষমতায় এসেই তিনি কৃষকদের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়েছিলেন। বাংলাদেশের অর্থনীতি সচল করেছিলেন। আর তারই ওপর এখনো বাংলাদেশ চলছে।

লালু আরো বলেন, খালেদা জিয়ার মতো নেত্রীকে সরকার যদি বিদেশে চিকিৎসা নিতে যেতে না দেয়, তবে বাংলাদেশের গণতন্ত্র ধ্বংস হয়ে যাবে। মানুষের হৃদয়ের মধ্যে খালেদা জিয়া আছেন। সেখান থেকে কেউ তাকে কেড়ে নিতে পারবে না। দেশের কৃষকদের ঘর থেকে বের করে আনতে হবে। গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবে, মুক্ত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

বগুড়া জেলা কৃষক দলের আহবায়ক আলহাজ্ব আকরাম হোসেন মন্ডল এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সাইফুল ইসলাম বাবলুর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া পৌরসভা মেয়র রেজাউল করিম বাদশা, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য এম.আর ইসলাম স্বাধীন, বিএনপি নেতা সাজ্জাদুজ্জামান সিরাজ জয়, বগুড়া জেলা কৃষকদল নেতা আনোয়ারুল ইসলাম মিন্টু, ইব্রাহীম হোসেন, আব্দুল মালেক, গোলাম হোসেন রাজ, সানাউল, আরিফুল ইসলাম, হারুন অর রশিদ, এনামুল হক, মাকসুদুর রহমান, ফিরোজ, খাদেমুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, শাহিনুর ইসলাম সহ নেতৃবৃন্দ। – বিজ্ঞপ্তি