ঘিওর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি : বিদ্যালয়ের ক্লাস বাদ দিয়ে শিক্ষার্থীদের দিয়ে রাস্তা সংস্কার করালেন এক সহকারী শিক্ষক। প্রচন্ড গরমে শিক্ষার্থীদের কোদাল হাতে রাস্তার মাটি কাটার কাজ করানোর জন্য অভিভাবকরা ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার বরাঈদ ইউনিয়েনের পাতিলা পাড়া আবদুর রহমান খান উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে দেখা যায়, মঙ্গলবার সকালে স্কুল শুরুর সময় ওই বিদ্যালয়ের ১০/১২ জন শিক্ষার্থী স্কুলে যাওয়ার রাস্তা সংস্কার করছে। আর এই ঘটনা পাশে দাঁড়িয়ে দেখছিলো ওই বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম পাখি।

গরমে ঘর্মাক্তা শিক্ষার্থীরা জানায়, ‘পাখি স্যার রাস্তা ঠিক করতে বলেছেন।’ মোঃ শহিদুল ইসলাম পাখি ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক।

এ ব্যাপারে সহকারি শিক্ষক শহিদুল ইসলাম পাখির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মানবিক কারণে কিছু সময়ের জন্য কয়েকজন ছাত্র দিয়ে কোঁদাল দিয়ে রাস্তা সমতল করিয়েছি। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আতাউর রহমান বলেন, ‘কাজটি কোনো মতেই ঠিক হয়নি। বিষয়টি জানতে পেরে কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছি।’

একাধিক অভিভাবক বলেন, স্কুলে আমরা সন্তান পাঠাই লেখাপড়ার জন্য। ক্লাস বাদ দিয়ে রাস্তার মাটির কাজ করানো জন্য নয়। শিক্ষকের এমন কান্ডজ্ঞানহীন কাজের তীব্র নিন্দা জানাই।

এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নায়ার সুলতানার মোবাইলে একাধিকবার কল করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রেবেকা জাহান বলেন, কোন শিক্ষার্থী দিয়ে কোনো শিক্ষক এমন কাজ করাতে পারেন না। অভিযোগ পেলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।