হুমায়ুন কবির জুশান, কক্সবাজার : কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুর্বৃত্তদের গুলিতে মোহাম্মদ শাহ (৪২) নামে এক রোহিঙ্গা নাগরিক নিহত হয়েছেন।

বুধবার সন্ধ্যায় সাড়ে ৫টায় বালুখালী মধুর ছড়া এলাকার ১৭ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত মোহাম্মদ শাহ বালুখালী মধুর ছড়া এলাকায় ১৭ নং ক্যাম্পে বসবাস করতেন। তিনি ওই ক্যাম্পের মৃত আব্দুল আলীর ছেলে। অস্হিতিশীল হয়ে উঠেছে রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পগুলো। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পে উত্তেজনা দেখা দেয়।

নিহতের স্ত্রী সাজেদা বেগমের সঙ্গে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। তিনি জানান, বাড়িতে নেটওয়ার্ক না থাকার কারণে মোবাইলে কথা বলতে বাড়ি থেকে বের হয়ে পাশের দোকানে যান। এসময় হঠাৎ কিছু অপরিচিত লোক এসে গুলি করে পালিয়ে যায়।

পরে তাকে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন আত্মীয় স্বজনরা। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় ক্যম্পে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিকল্পিত উখিয়া চাই এর আহবায়ক সাংংবাদক নুর মোহাম্মদ সিকদার বলেন, কিছু দিন পর পর ক্যামেপ দফায় দফায় গুলির শব্দ শুনা যায়। নিহত হয় রোহিঙ্গাদের হাতে রোহিঙ্গারা। আমরা স্থানীয়রাও নরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

স্থানীয় পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্য এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ক্যাম্পে একাকি গ্রুপ রয়েছে। আধিপ্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীঘদিন ধরে ক্যাম্পে এক অরাজক পরিস্থিতি তৈরি করে রেছেছে। ১৪ আর্মস পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক মোাম্মদ নাইমুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অপরাধীরা যতই শক্তিশালী হোক না কেন তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। ইতিপূর্বেই আমরা তার স্বাক্ষর রেখেছি। ক্যাম্পের পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।