নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.আইয়ুব আলীর বিরুদ্ধে আপত্তিকর ফেসবুক কমেন্টসহ নানা অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ মিছিল ও কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতাকর্মিরা ।

শনিবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে সামনে রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের একাংশের নেতাকর্মিরা এ কর্মসূচি পালন করে।

রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোকারম হোসেন বাহারের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সেতুমন্ত্রীর ভাগনে রামপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজীস সালেকিন রিমন, চরফকিরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জায়দল হক কচি, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম চৌধুরী শাহীন প্রমূখ।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা, মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.আইয়ুব আলী সেতুমন্ত্রীর ওবায়দুল কাদেরের সম্মানহানি করে আপত্তিকর ফেসবুক কমেন্ট,ছোট ফেনী নদী থেকে বালু উত্তোলন, মুছাপুর ক্লোজার সংলগ্ন খাস জায়গা দখলের তীব্র নিন্দাও প্রতিবাদ জানিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মো.আইয়ুব আলীকে আওয়ামীলীগ থেকে বহিষ্কারের দাবি করেন। প্রতিবাদ সভা শেষে বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মিরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.আইয়ুব আলীর কুশপুত্তলিকা দাহ করেন। ইউপি চেয়ারম্যান মো.আইযুব আলী বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহনও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার অনুসারী।

কমেন্টের বিষয়ে জানতে চাইলে মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.আইযুব আলী কমেন্ট করার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তবে তার বিরুদ্ধে আনীত অপর অভিযোগ মিথ্যা-ভিত্তিহীন বলে তিনি দাবি করেন। চেয়ারম্যান আরো বলেন, ওবায়দুল কাদের আমাদের গর্বের ধন। নোয়াখালীর সাংবাদিক হয়ে কেন এখানে এ কথাটা আসবে,কে হচ্ছেন। আমি ওই সাংবাদিককে ইঙ্গিত করে লিখেছি আমি হব। ঊনি না হলেও সাংবাদিকরা নিউজ করতে পারে না। কে হচ্ছেন? আমরা একজন তৃণমূলের কর্মি। আমার পুনরায় জন্ম হলেও তো ওই পর্যায়ে যেতে পারব না।

কাদের মির্জা ঘোষিত কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বাবুল বলেন,এ ধরনের মন্তব্য ন্যাক্কারজনক। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান বলেন, এ ধরনের মন্তব্য দুঃখজনক। এ ধরনের মন্তব্যকারীকে তিনি দল থেকে বহিষ্কারের দাবি করেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) নোয়াখালী ২৪ নামে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালের লাইক পেজে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ আটজন জাতীয় নেতার ছবি দিয়ে জনমত যাচাইয়ে একটি পোস্টে লেখা হয় কে হচ্ছেন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। ওই পোস্টে সেতুমন্ত্রীর নিজ উপজেলা কোম্পানীগঞ্জের মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.আইয়ুব আলী কমেন্ট করেন আমি হব। ওই পোস্টে তার এমন মন্তব্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়। অনেকে এমন মন্তব্যের কারণ খুঁজতে থাকেন? মুহূর্তের মধ্যেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। আর সেই সাথে বইতে শুরু করে নানা সমালোচনা। ঘটনা বেগতিক দেখে ইউপি চেয়ারম্যান এরপর নিজেই কমেন্টটি সরিয়ে নেন।