কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার আমিরাবাদ এলকার সুগন্ধা নদীর চরে যাত্রী নিয়ে কুয়াশায় আটকা পড়েছে বরগুনাগামী লঞ্চ এমভি অথৈ-১।

রোববার ভোরে ঘন কুয়াশায় চরে উঠিয়ে দেয় যাত্রীবাহী লঞ্চটি। পরে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের অর্ধেক ভাড়া দিয়ে নামিয়ে দেয়। যাত্রীরা ট্রলারে করে লঞ্চ থেকে নেমে সড়ক পথে বরগুনা যায়।

এম ভি অথৈ-১ লঞ্চের কয়েকজন যাত্রী জানান, শনিবার সন্ধ্যায় ছয়টায় ঢাকা সদরঘাট থেকে দুই শতাধিক যাত্রী নিয়ে বরগুনার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে এমভি অথৈ-১ লঞ্চ। রাতে কুয়াশার মধ্যে চালক ধীরে ধীরে চালিয়ে আসছিলেন। ঝালকাঠি নলছিটি উপজেলার আমিরাবাদ আসলে কুয়াশায় সামনে কিছুই দেখা যাচ্ছিল না। ভোরে চালক লঞ্চটি সুগন্ধা নদীর চরে উঠিয়ে দেয়। প্রচন্ড ঠান্ডায় যাত্রীরা লঞ্চের ভেতরেই আশ্রয় নেয়। লঞ্চ কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের নিরাপদে চরে নামার জন্য অনুরোধ করে। পরে খবর পেয়ে নলছিটি লঞ্চঘাট এলাকা থেকে কয়েকটি ট্রলার এসে যাত্রীদের নামিয়ে নিয়ে যায়। যাত্রীরা সড়ক পথে বরগুনা চলে যায়।

লঞ্চের সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম বলেন, কুয়াশার কারণে চালক সামনে কিছুই দেখছিলেন না। এদিকে পাশ দিয়ে একটি জাহাজ যাচ্ছিল। জাহাজটিকে পাশ কাটাতে গিয়ে লঞ্চটি চরে উঠে যায়। পরে যাত্রীদের অর্ধেক ভাড়া দিয়ে নামিয়ে দেওয়া হয়। লঞ্চটি রাতে জোয়ার আসলে পানিতে নামানোর চেষ্টা করা হবে। অন্যথায় বিকল্প উপায়ে লঞ্চটিকে নামানোর ব্যবস্থা করা হবে।