লুৎফর রহমান, তাড়াশ : সিরাজগঞ্জের তাড়াশে পুকুর পাড়ে ছাগল গাছ খাওয়ায় সে ছাগলকে ধারালো হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে হাসমত আলী মিয়া নামের এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে।

এ দিকে ক্ষতিগ্রস্থ ছাগল মালিক কৃষক আহাদ আলী মিয়া তার ছাগল হত্যার আইনগত প্রতিকার পেতে হাসমত আলী মিয়া নামের ওই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে তাড়াশ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

রোববার বিকালে উপজেলার সগুনা ইউনিয়নের লালুয়া মাঝিড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি তাড়াশ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.নূরে আলম নিশ্চিত করেছেন। তিনি এপ্রতিবেদককে জানান, এ ঘটনায় থানায় রোববার রাত ১০ টার দিকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই কৃষক।
অবশ্য, অভিযুক্ত হাসমত আলী মিয়া তার বিরুদ্ধে ছাগল হত্যার অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন,বিকালে পুকুরে মাছের খাদ্য দিতে ব্যাস্ত ছিলাম। আমার পুকুর পাড়ে কোন ছাগল আমি দেখতে পায়নি। অথচ তারা আমাকে দোষারোপ করছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লালুয়া মাঝিড়া গ্রামের মৃত নিয়ামত আলী মিয়ার ছেলে মো. হাসমত আলী গ্রামের দক্ষিন মাঠে তার তিন ফসলী জমিতে সম্প্রতি একটি পুকুর খনন করেন। আর সে পুকুর পাড়ে তিনি নানা ধরনের গাছও লাগান।

এ দিকে রোববার দিনের কোন এক সময় একই গ্রামের মৃত আফতাব আলী মিয়ার ছেলে মো. আহাদ আলী মিয়ার একটি ছাগল পুকুর পাড়ে হাসমত আলীর লাগানো গাছ খাচ্ছিল। এ সময় হাসমত আলী ধারালো হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে আহাদ আলীর একটি ছাগল হত্যা করে সেখানে ফেলে রেখে যান।

সন্ধ্যায় বাড়িতে পালিত ছাগলটি ফিরে না আসলে ছাগল মালিক খোঁজ করতে করতে সেখানে গিয়ে দেখেন রক্তাক্ত ও মৃত অবস্থায় ছাগলটি পড়ে আছে। পরে ছাগলের মালিক কৃষক আহাদ আলী রাত আটটার দিকে তার মৃত ছাগলটি নিয়ে তাড়াশ থানায় হাজির হয়ে পুকুরের মালিক হাসমত আলী মিয়া নামের ওই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ প্রসঙ্গে তাড়াশ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.নূরে আলম জানান, অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেয়া হবে।