মামুন হোসেন : ‘অনেকখানি হিন্দু, অনেকখানি মুসলমান, অনেকখানি বৌদ্ধ কিংবা অনেকখানি খ্রিষ্টান হওয়ার পূর্বে সকলের উচিত একটুখানি মানুষ হওয়া’ – এই কনসেপ্টের উপর ভিত্তি করে নির্মিত হয়েছে কথাসাহিত্যিক এবং নির্মাতা গোলাম রাব্বানীর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘’গরৎধপষব ওহ ঐবধাবহ (মিরাক্যাল ইন হ্যাভেন)’’। জাত, বর্ণ, ধর্ম নির্বিশেষে সকল ধরণের ভেদাভেদ ছাপিয়ে চলচ্চিত্রে প্রাধান্য পেয়েছে মানবিকতার উজ্জল দৃষ্টান্ত স্বরূপ দুর্দান্ত এক সাহসী গল্প। ইতোমধ্যেই এই গল্পের জন্য নির্মাতা ‘টহরপবভ’ এবং ‘টঝঅওউ’ থেকে পুরস্কৃত হয়েছেন।

স্বল্পদৈর্ঘ্য এ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন খ্যাতিমান অভিনেতা শতাব্দী ওয়াদুদ সহ আরও অনেকেই। সেই সাথে মিউজিকের কাজ করেছেন আরেক খ্যাতিমান মিউজিশিয়ান পিন্টু ঘোষ। চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছেন মুহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম রণি। মূলত গল্পের প্রতি মুগ্ধতার জায়গা থেকে তিনি এগিয়ে আসেন এবং প্রধান প্রযোজকের দায়িত্ব পালন করেন। এর পাশাপাশি সহকারি প্রযোজক হিসবে ছিলেন মুহাম্মদ মাহবুবুল হক।

সম্প্রতি ‘মিরাক্যাল ইন হ্যাভেন’ বিশ্ব দরবারে পুরস্কৃত হতে শুরু করেছে। যেমন, কয়দিন আগে ‘ফ্রান্সের বিশ্ব কান চলচ্চিত্র উৎসবের মান্থলি কম্পিটিশনে’ এই সিনেমাটি দুটি ক্যাটাগরিতে পুরষ্কার জিতেছে। (১) বেস্ট ডিরেক্টর অ্যাওয়ার্ড, এবং (২) বেস্ট ফ্যামিলি/চিল্ড্রেন ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড।

এ ছাড়া চলচ্চিত্রটি যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে আয়োজিত বেশ আড়ম্বরপূর্ণ এবং উৎসবমুখর অনুষ্ঠান “Bengali Film Festival of Dallas’’-এ নির্বাচিত হয়েছে। শুধু তাই নয়। চলচ্চিত্রটি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম উল্লেখযোগ্য উৎসব “South Asian Short Film Festival’’-এও নির্বাচিত হয়েছে। এর বাইরে যুক্তরাজ্যের একটি স্থানীয় চলচ্চিত্র উৎসবেও প্রদর্শনীর জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

‘মিরাক্যাল ইন হ্যাভেন’ চলচ্চিত্র সম্বন্ধে নির্মাতার কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, চলচ্চিত্র জুড়ে তিনি এমন এক সংকটের কথা বলতে চেয়েছেন যা পৃথিবীর সকল দেশেই বিদ্যমান। এই ভয়াবহ সংকট যদি মানুষ কাটাতে না পারে তাহলে অচিরেই পৃথিবী হয়ে উঠবে এক ভয়াবহ যুদ্ধভূমি।

উল্লেখ্য, গোলাম রাব্বানী তার স্নাতোকত্তর সম্পন্ন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। এরই মাঝে তিনি লিখেছেন ‘অন্তরগঙ্গা’ এবং ‘মনশ্মশান’ এর মতো পাঠকপ্রিয় উপন্যাস, যা বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমানে তিনি চাকুরির পাশাপাশি ব্যস্ত সময় পার করছেন লেখালেখি এবং চলচ্চিত্র নির্মাণ নিয়ে।