কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় পিকআপ ও মোটরসাইকেলের সংর্ঘষে ঢাকা জজ কোর্টের শিক্ষানবিশ আইনজীবী মো. সোয়েবুর রহমান জুয়েল (৩৪) নিহত হয়েছেন। এ সময় মোটর সাইকেলে থাকা তার স্ত্রী মিতু আক্তার আহত হয়।

রোববার বিকাল ৬টার দিকে উপজেলার কাঠালিয়া-ভান্ডারিয়া সড়কের বান্দাঘাটা বাজার সংলগ্ন এলাকায় এ দূর্ঘটনা ঘটে। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মো. সোয়েবুর রহমান জুয়েল মারা যায়।

মো. সোয়েবুর রহমান জুয়েল ঢাকা জজ কোর্টের শিক্ষানবিশ আইনজীবী ও উপজেলার হেতালবুনিয়া ও পশ্চিম আউরা গ্রামের বাসিন্দা মো. আব্দুস সত্তারের (কন্ট্রাকটার) ছেলে।

প্রত্যাক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, কাঠালিয়া-ভান্ডারিয়া সড়কের বান্দাঘাটা বাজার সংলগ্ন এলাকায় পূর্ব থেকে একটি পিকআপ অবস্থান করছিল। এ সময় কাঠালিয়া থেকে মোটর সাইকেলে যোগে স্ব-স্ত্রী ভান্ডারিয়ার দিকে যাচ্ছিলেন।

বিপরিত দিক ভান্ডারিয়া থেকে অন্য একটি পিকআপ আসলে মোটর সাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অবস্থান করা পিকআপে সাথে লাগিয়ে দেয়। এতে মোটর সাইকেল চালক জুয়েল গুরুতর আহত হয় এবং স্ত্রী ছিটকে পাশের ডোবায় পড়ে গিয়ে আহত হয়।

পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে মোটর সাইকেল চালক মো. সোয়েবুর রহমান জুয়েল মারা যায়।

কাঠালিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুরাদ আলী বলেন, সড়ক দূঘটনায় মোটর সাইকেল চালক মারা গেছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। অভিযোগ দিলে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মোটর সাইকেল ও পিকআপটি জব্দ করে থানায় রাখা হয়েছে।