এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, মান্দা (নওগাঁ) : নওগাঁর মান্দায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে একটি কলাবাগান সাবাড় করে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। বাগানের চারিদিকে লাগানো তিন শতাধিক ইউক্যালিপটাস গাছও কেটে গায়েব করে দেয়া হয়েছে। রোববার রাতে উপজেলার কামারকুড়ি গ্রামের মাঠে এ ঘটনাটি ঘটে।

ভুক্তভোগী সাইফুল ইসলাম জানান, উপজেলার কামারকুড়ি মৌজায় ওয়ারিশান সূত্রে পাওয়া জিনারপুর গ্রামের গিয়াস উদ্দিন গংদের ভোগদখলীয় ২২ শতক জমি তিনি ও তার ভাই শফিকুল ইসলাম কিনে নেন।

ওই জমিতে তারা কলাবাগানসহ চারিদিকে ৩ শতাধিক ইউক্যালিপটাস গাছের চারা রোপণ করেন। ঘটনার রাতে সমুদয় কলাগাছ কেটে সাবাড় করে দেওয়া হয়েছে। গায়েব করা হয়েছে ইউক্যালিপটাস গাছ।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, জমি কেনার পর থেকেই বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল কামারকুড়ি গ্রামের আল মামুন, পটলু ও শিহাব। জের ধরে রাতের অন্ধকারে তার কলাবাগান কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষরা। এতে অন্তত লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

ঘটনায় রোববার রাতে তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনের বিরুদ্ধে মান্দা থানার অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী সাইফুল ইসলাম।

মন্ডলপাড়া গ্রামের অনেকে জানান, আর কিছু দিনের মধ্যেই গাছগুলোতে কলা ধরত। এ অবস্থায় কলাগাছ কেটে সাইফুল ইসলামের চরম ক্ষতি করা হয়েছে।

তবে অভিযুক্ত আল মামুন বলেন, ‘জমি নিয়ে সাইফুল ইসলামের সাথে বিরোধ চলছে। তাই বলে আমরা কলাগাছ কেটেছি এটি সঠিক নয়।’

মান্দা থানার উপপরিদর্শক জান্নাতুন ফেরদৌস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে সাইফুল ইসলাম নামে একব্যক্তি থানায় অভিযোগ করেছেন। এরই মধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।