সিলেট সংবাদদাতা : সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান ওঠা-নামা বন্ধ রয়েছে। সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটায় বিমানবন্দরের রানওয়েতে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। এ জন্য আগামী ২০ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত ওসমানী বিমানবন্দরে সব ধরনের ফ্লাইট ওঠানামা স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ম্যানেজার হাফিজ আহমদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বন্যার পানি ইতোমধ্যেই সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ের (শোল্ডারে) কাছাকাছি চলে এসেছে। পানি ক্রমাগত বাড়ছে। যে কোনো সময় রানওয়ে প্লাবিত হতে পারে। এ কারণে ফ্লাইট ওঠানামা স্থগিত রাখা হয়েছে।

এদিকে, সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুর থেকে তারা উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছেন। নৌবাহিনীর সহযোগিতাও চাওয়া হয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান। তিনি জানিয়েছেন, পাশাপাশি নৌবাহিনীর সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। আজকের মধ্যেই তারাও কাজ শুরু করতে পারেন।

বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় ক্রমাগত পানি বেড়ে প্লাবিত হয়েছে সিলেট নগর, ২০টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভা। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন অন্তত ২৫ লাখ মানুষ।

এদিকে, সিলেটে বৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে। নদনদী ও হাওরের পানি হু হু করে বাড়ছে। সুরমার পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ২৪ ঘণ্টায় এক থেকে দেড় ফুট করে পানি বেড়েছে।

সিলেট সিটি করপোরেশনের অর্ধেক এলাকা প্লাবিত হয়েছে। পানি বাড়া অব্যাহত থাকায় পুরো শহর প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আগামী ২০ জুন পর্যন্ত সিলেট অঞ্চলে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে।