বগুড়া অফিস : বগুড়ার নন্দীগ্রামে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় ফেল করায় অভিমান করে কেয়া খাতুন (১৫) নামের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। সে স্থানীয় ভরতেতুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় এবং উপজেলার ভরতেতুলিয়া গ্রামের আব্দুল কাদেরের মেয়ে।

শনিবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। গত শুক্রবার দুপুরে নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের ভরতেতুলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হলে কেয়া খাতুন ভূগোল পরীক্ষায় ফেল করে। পরদিন শুক্রবার দুপুরে পরীক্ষায় ফেল করার অপমান সহ্য করতে না পেরে ক্ষোভ ও অভিমান করে বাড়ির নিজ কক্ষে গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস দেয়। পরে পরিবারের লোকজন জানতে পেরে দরজা ভেঙ্গে দেখতে পায় সে আত্মহত্যা করেছে।

নন্দীগ্রাম থানার কুমিড়া পন্ডিতপুকুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ হরিদাস মন্ডল জানান, এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় অভিমানে স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।