মেহেরপুর প্রতিনিধি : মেহেরপুরের গাংনীর গৃহবধূ ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নিশাত তাসনিম উর্মী হত্যা মামলায় শশুর হাশেম শাহ ও স্বামী আশফাকুজ্জামান প্রিন্সকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার দুপুরে আসামীদের তোলা হয় মেহেরপুর গাংনীর আমলি আদালতে। আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তারিক হাসান এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই শাহিনুজ্জামন জানান, ৮ সেপ্টম্বর রাত ১১ টার দিকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে নিশাত তাসনিম উর্মীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার শশুর, স্বামী ও শাশুড়ি এটি আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু লাশের গায়ের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। এটি হত্যাকান্ড বলে ধারণা করা হয়। পরদিন নিশাতের বাবা গোলাম কিবরিয়া বাদি হয়ে গাংনী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঐ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয় শশুর ও স্বামীকে।

পরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারলে মামলার গুরত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করে পুলিশ। তাই আদালতের কাছে তাদের রিমান্ডের আবেদন করা হয়।

আদালত তাদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের পর আসল রহস্য উদ্ঘাটন হতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, মামলার ময়নাতদন্তের রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছেন তারা। অন্য আসামী শাশুড়ীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।