বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া পৌর মেয়র রেজাউল করিম বাদশা বলেছেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় নির্বাচন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত এই সরকারের যতগুলো নির্বাচন হয়েছে তা ছিল কিম্ভুতকিমাকার ও উদ্ভট, যা ছিল একতরফা, প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন, নিশিরাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি করা, পাইকারি হারে জালভোট দেওয়া, ভোটকেন্দ্র দখল, ভোট ডাকাতি, গায়েবি ভোট, ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে ঢুকতে না দেওয়াসহ একের পর এক অভিনব ভোট।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের এই দিনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের অবৈধ সরকার বিনা নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে। আওয়ামী লীগ বারবার জনগণের সাথে প্রতারণা করেছে। আওয়ামী লীগ জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠায় দেশের গণতান্ত্রিক সব প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিয়েছে।

৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে বগুড়া জেলা বিএনপি আয়োজিত বুধবার সকালে দলীয় কার্যালয়ে সামনে মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ কখনই গণতন্ত্রকে পাত্তা দেয় না। জনগণের ক্ষমতার প্রতি অবিশ্বাসী-অবিশ্বস্ত আওয়ামী লীগ মানুষের ভোটাধিকার হরণ করতে পরিকল্পিতভাবে ২০১১ সালে সংবিধান থেকে তত্ত¡াবধায়ক সরকার পদ্ধতি বাতিল করে দিয়েছিল। এর পর ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রেখেছে। মানববন্ধন কর্মসূচি কেন্দ্র করে সকাল থেকে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদেরকে মিছিল নিয়ে মানববন্ধনস্থলে জড়ো হয়।

এ সময় মিছিল থেকে তারা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং সরকার বিরোধী বিভিন্ন স্লোগানে কর্মসূচির প্রাঙ্গন মুখরিত করে তোলেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বগুড়া পৌর সাবেক মেয়র এ্যাড. একেএম মাহবুবর রহমান, বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা, জয়নাল আবেদীন চাঁন, লাভলী রহমান, জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও শহর বিএনপির আহবায়ক মাহবুবর রহমান বকুল, জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য এম আর ইসলাম স্বাধীন, এ্যাড. হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, কেএম খায়রুল বাশার, এনামুল কাদির এনাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাইন, সহিদ উন নবী সালাম, মনিরুজ্জামান মনির, সাইদুজ্জামান শাকিল, মাফতুন আহমেদ খান রুবেল, শহর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রহমান শামীম, জেলা যুবদলের আহবায়ক খাদেমুল ইসলাম খাদেম, যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক মাজেদুর রহমান জুয়েল, যুগ্ম আহবায়ক সরকার মুকুল জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান, সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী রিগ্যান, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া শাখার সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মোজাম্মেল হক, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক ময়নুল হক বকুল, জেলা কৃষকদলের সদস্য সচিব সাইফুল ইসলাম বাবলু, সদর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এ এম রাসেল মামুন, জেলা মহিলা নেত্রী নাজমা আক্তার, বগুড়া শহর যুবদলের আহবায়ক আহসান হাবিব মমি, যুগ্ম আহবায়ক হারুন-অর-রশীদ সুজনসহ নেতৃবৃন্দ। – বিজ্ঞপ্তি