খোলাবার্তা২৪ ডেস্ক : আগামী বছর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরতে ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক শুরু হচ্ছে নতুন আরেকটি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট প্রতিযোগিতা। ছয় দলের সেই প্রতিযোগিতায় ফ্র্যাঞ্চাইজি নেওয়ার কথা ঘোষণা করল শাহরুখ খানের নাইট রাইডার্স।

এর আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছিল, আইপিএলের তিনটি ফ্র্যাঞ্চাইজি নতুন এ টুর্নামেন্টে দল নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। দলগুলো হলো- মুম্বই ইন্ডিয়ান্স, দিল্লি ক্যাপিটালস ও শাহরুখ খানের কলকাতা নাইট রাইডার্স।

নাইট রাইডার্স আজ তাদের অংশগ্রহণের কথা জানাল। নাইট রাইডার্সের অন্যতম কর্ণধার শাহরুখ খানের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে ইউএই টি-টোয়েন্টি লিগের চেয়ারম্যান খালিদ আল জারুনির। এ চুক্তির কথা জানানো হয়েছে প্রতিযোগিতার কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকেও।

পেশাদার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নাইট রাইডার্স একটি পরিচিত নাম। আইপিএলের শুরু অর্থাৎ ২০০৮ সাল থেকেই কলকাতা নাইট রাইডার্স খেলছে। দু’বার আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও ২০১৫ সাল থেকে খেলছে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স। সম্প্রতি আমেরিকার মেজর লিগ ক্রিকেটেও বিনিয়োগ করার কথা ঘোষণা করেছে শাহরুখ খান, জুহি চাওলাদের সংস্থা। আমেরিকার প্রতিযোগিতায় লস অ্যাঞ্জেলেস ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলবে দল। সে ক্ষেত্রে নাইট রাইডার্স গোষ্ঠীর চতুর্থ ফ্র্যাঞ্চাইজি হবে আমিরাতের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগে।

শাহরুখ বলেছেন, ‘‘আগামী কয়েক বছরে নাইট রাইডার্সকে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে দিতে চাই। আমিরাতে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সম্ভাবনা বেশ ভাল বলেই মনে হচ্ছে। ইউএই টি-টোয়েন্টি লিগের অংশ হতে পেরে আমরা খুবই খুশি এবং উত্তেজিত। সন্দেহ নেই আমরা দারুণ সাফল্য পাব।’’

অন্য দিকে জারুনি বলেছেন, ‘‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের প্রতি নাইট রাইডার্সের দায়বদ্ধতা এবং অভিজ্ঞতা আমাদের প্রতিযোগিতাকে সমৃদ্ধ করবে। বিশ্বের নানা প্রান্তে ওদের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি ভাল খেলছে। আমি বিশ্বাস করি এই সমঝোতা নাইট রাইডার্স এবং ইউএই টি-টোয়েন্টি লিগ- উভয় পক্ষকেই লাভবান করবে। আমাদের প্রতিযোগিতা নিয়ে ক্রিকেট বিশ্বের বেশ কিছু বড় নাম দারুণ আগ্রহী। এই প্রতিযোগিতা স্থানীয় এবং উঠতি ক্রিকেটারদের পরিচিতি দেবে।’’

নাইট রাইডার্সের সিইও বেঙ্কি মাইসোর বলেছেন, ‘‘আমরা নিজেদের খুবই ভাগ্যবান মনে করি। কারণ ধারাবাহিক ভাবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের বিশ্বে পরিচিতি লাভ করছি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের বিভিন্ন বড় পেশাদার প্রতিযোগিতাগুলির অংশ হওয়ার জন্য আমাদের কাছে নিয়মিত আমন্ত্রণ আসছে। আমরাও বিশ্ব জুড়ে খেলাটার প্রসারের জন্য কাজ করতে চাইছি। ইউএই-র ক্রিকেটের উন্নতির স্বার্থে আমরা সেখানে বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আমরা বিভিন্ন প্রতিযোগিতার অংশ হচ্ছি।’’