হুমায়ুন কবির জুশান, কক্সবাজার : কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতসহ আশপাশের এলাকা থেকে কয়েক শ’ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ।

সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তাদের আটক করা হয়।

আটকদের মধ্যে পাঁচজন নারী এবং অন্যরা শিশু। রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মাওলানা ইসমাইল হোসেন বলেন, আমরা রোহিঙ্গা হলেও আমাদেরও ঈদ আনন্দ আছে। আমাদের রোহিঙ্গা সন্তানরা ঈদে একটু বিনোদনের জন্যে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে গেছে। এরা ক্যাম্পে আবার ফিরে আসবে। শুনেছি আমাদের রোহিঙ্গা শিশুদের পুলিশ আটক করে রেখেছে। জিয়াউর রহমান মাঝি বলেন, আমরা রোহিঙ্গা মুসলমান। ঈদ আনন্দ বিশেষ বিশেষ খুশির দিনে অভিভাবকদের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে আমাদের সুযোগ দেয়া দরকার। অনুমতি ছাড়া ক্যাম্পের বাহিরে যাওয়া নিষেধ। এরপরও কেন রোহিঙ্গারা বেরিয়ে গেল জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঈদ আনন্দে শিশুরা কী তা মানে? এ ক্যাম্প থেকে ঐ ক্যাম্পে আত্নীয়-স্বজনের কথা বলে রোহিঙ্গা শিশুরা দল বেঁধে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে গেছে বলে শুনেছি।

রোহিঙ্গাদের ক্যাম্পের বাইরে আসতে হলে অনুমতি নেয়ার নিয়ম রয়েছে। তা ভঙ্গ করে তারা সৈকতে আসে। এ ছাড়া পর্যটকদের উৎপাত করার অভিযোগও পেয়েছে পুলিশ।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি তদন্ত মো. সেলিম উদ্দিন জানান, সমুদ্রসৈকত ও আশপাশের এলাকায় অবস্থান নিয়ে রোহিঙ্গারা পর্যটককে উৎপাত করছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান শুরু করে। এখন পর্যন্ত ৪৭৬ রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়েছে। আটকদের বেশির ভাগই শিশু। এখনও অভিযান চলছে বলে জানান তিনি।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস জানান, ক্যাম্প ছেড়ে তারা কীভাবে সৈকত পর্যন্ত পৌঁছেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।