মোঃ সামছুল আলম, আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার আদমদীঘিতে এক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সুকৌশলে ডেকে নিয়ে জোড় পূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে।

ধর্ষনের ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সদরের তালসন কালীবাড়ী সংলগ্ন পরিত্যক্ত একটি চাতাল মিলের বারান্দায়।

এ ঘটনায় ধর্ষক নয়ন চন্দ্র দাস (৩৫)কে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

জানা যায়, আদমদীঘি উপজেলা সদরের তালসন দক্ষিনপাড়ার ফেরদৌস প্রামানিকের প্রতিবন্ধী মেয়ে (১২) গত বুধবার দুপুরে বাড়ীর পাশে পরিত্যক্ত একটি চাতাল মিলের সামনে ঘোরাফেরা করছিল।

এ সময় তালসন পালপাড়া গ্রামের অনিল চন্দ্র দাসের ছেলে নয়ন চন্দ্র দাস সুযোগ বুঝে ওই প্রতিবন্ধী কিশোরীকে পরিত্যক্ত ওই চাতাল মিলের দক্ষিন পাশের বারান্দায় ডেকে নিয়ে জোড়পূর্বক ধর্ষন করে। ঘটনার সময় ওই কিশোরীর বাবা সহ প্রতিবেশীরা দেখতে পেয়ে ধর্ষক নয়ন চন্দ্র দাসকে হাতেনাতে আটক করে থানা পুলিশের নিকট সোর্পদ করেন।

এ ঘটনায় বুধবার রাতে প্রতিবন্ধী কিশোরীর বাবা ফেরদৌস প্রামানিক বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষন মামলা করেন। থানার অফিসার ইনর্চাজ রেজাউল করিম রেজা মামলা দায়েরের বিষয়টি সহ ধর্ষক নয়ন চন্দ্র দাসকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ বৃহস্প্রতিবার সকালে গ্রেপ্তারকৃত নয়ন দাসকে আদালতে পাঠিয়েছে।