খোলাবার্তা২৪ ডেস্ক : আগামী আইপিএল-এ দু’টি নতুন দলও যুক্ত হওয়ায় নিলামটাও হবে বড়। ফলে দল তৈরি করার ক্ষেত্রে অনেক নতুন নিয়ম এসেছে। পুরনো আট ফ্র্যাঞ্চাইজি সর্বাধিক চার জন করে পুরনো ক্রিকেটারকে রেখে দিতে পারত। কারা কাকে রাখল, সেই তালিকাও চূড়ান্ত হয়ে গেলো।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর রেখে দিল বিরাট কোহলী, গ্লেন ম্যাক্সওেল ও মহম্মদ সিরাজকে। কোহলীকে ১৫ কোটি, ম্যাক্সওয়েলকে ১১ কোটি ও সিরাজকে ৭ কোটি টাকায় রাখল আরসিবি। চার জনকে রাখা যেত। কিন্তু আরসিবি তিন জনকে রেখেছে। নিলামে তাদের হাতে থাকছে আরো ৫৭ কোটি টাকা।

তবে কোহলী এ বার আর অধিনায়কত্ব করবেন না। তিনি গত আইপিএল-এই জানিয়ে দিয়েছিলেন, আর অধিনায়কত্ব করবেন না।

কোহলী বলেন, ‘‘আরও তিনটে বছর এই ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে থাকতে পারব। এটা আমার কাছে বিরাট প্রাপ্তি। আমার বিশ্বাস, এবার আমরা সেরা ফল করব। আশা করব, আমরা সবাইকে গর্বিত করতে পারব। আমি এ বার অন্য ভূমিকায় থাকব। আগের মতোই নিজের মন-প্রাণ উজাড় করে দেব।’’

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স চার জনকে রেখেছে। দলে থেকে গেলেন রোহিত শর্মা (১৬ কোটি টাকা), যশপ্রীত বুমরা (১২ কোটি টাকা), সূর্যকুমার যাদব (৮ কোটি টাকা) এবং কায়রন পোলার্ডকে (৬ কোটি টাকা)। তারা আরো ৪৮ কোটি টাকা নিয়ে নিলামে আসবে।

মুম্বই অধিনায়ক রোহিত বলেন, ‘‘এই পর্বটা এ বারই সবথেকে কঠিন ছিল। আমাদের দলে এত ভাল ভাল ক্রিকেটার রয়েছে, কাকে ছেড়ে কাকে রাখব, সেটা ঠিক করা অত্যন্ত কঠিন ছিল। যাদের রাখতে পারলাম না, তাদের ছেড়ে দেওয়াটা মন খারাপ করে দিচ্ছে।’’

পঞ্জাব কিংস মাত্র দু’ জনকে রেখেছে। দলে থেকে গেলেন ময়াঙ্ক আগরওয়াল (১২ কোটি টাকা), অর্শদীপ সিংহ (৪ কোটি টাকা)। তারা রাখল না মহম্মদ শামিকে। নিলামে পঞ্জাবের হাতে থাকবে এখন ৭২ কোটি টাকা।

লোকেশ রাহুলকে রাখতে পারলো না পঞ্জাব। দলের প্রশিক্ষক অনিল কুম্বলে বলেন, ‘‘আমরা রাহুলকে রাখতেই চেয়েছিলাম। কিন্তু ও না থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ও ঠিক করেছে নিলামে যাবে। আমরা ওর সিদ্ধান্তকে সম্মান করি।’’

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ তিন জনকে রেখেছে। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে ১৪ কোটি টাকায় রেখে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া থেকে গেলেন আব্দুল সামাদ এবং উমরান মালিক। দু’জনেই ৪ কোটি টাকায় থাকলেন। নিলামে হায়দরাবাদের হাতে থাকবে আরো ৬৮ কোটি টাকা।

হায়দরাবাদ ছেড়ে দিল ডেভিড ওয়ার্নারকে। অবশ্য ওয়ার্নার যে থাকবেন না, সেটা আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। এ ছাড়া হায়দরাবাদ রাখল না রশিদ খান, ভুবনেশ্বর কুমারকেও। দলের পক্ষ থেকে অবশ্য জানানো হয়েছে, নিলামে তাদের লক্ষ্য থাকবে রশিদকে নেওয়া।

গত বারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপরা কিংস রেখে দিয়েছে মহেন্দ্র সিংহ ধোনি, রুতুরাজ গায়কোয়াড়, রবীন্দ্র জাডেজা ও মইন আলিকে। তবে তাদের প্রথম পছন্দ হিসেবে ধোনি নন, থাকলেন জাডেজা। ধোনিকে রাখা হয়েছে ১২ কোটি টাকায়। জাডেজা থাকছেন ১৬ কোটি টাকায়। মইনের জন্য চেন্নাই দিচ্ছে ৮ কোটি টাকা, রুতুরাজের জন্য ৬ কোটি টাকা। নিলামে চেন্নাইয়ের হাতে থাকছে আরো ৪৮ কোটি টাকা।

চেন্নাই থেকে আপাতত বাদ পড়লেন ফ্যাফ দু’প্লেসি, সুরেশ রায়না, ডোয়েন ব্র্যাভো।

দিল্লি ক্যাপিটালস রাখল ঋষভ পন্থ (১৬ কোটি টাকা), অক্ষর পটেল (৯ কোটি টাকা), পৃথ্বী শ (সাড়ে ৭ কোটি টাকা), আনরিখ নোখিয়াকে (সাড়ে ৬ কোটি টাকা)। নিলামে দিল্লির হাতে থাকছে ৪৮ কোটি টাকা।

নিলামের আগে দিল্লি দল থেকে উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে বাদ পড়লেন শ্রেয়স আয়ার, শিখর ধবন, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কাগিসো রাবাডা।

কলকাতা নাইট রাইডার্স রাখল আন্দ্রে রাসেল (১২ কোটি), বরুণ চক্রবর্তী, (৮ কোটি), বেঙ্কটেশ আয়ার (৮ কোটি) এবং সুনীল নারাইনকে (৮ কোটি)। নিলামে তাদের হাতেও থাকছে ৪৮ কোটি টাকা।

গত বারের অধিনায়ক অইন মর্গ্যানকে ছেড়ে দিল কলকাতা। এমনকী যাঁকে ভবিষ্যতের অধিনায়ক হিসেবে দেখা হচ্ছিল, সেই শুভমান গিলকেও রাখল না কলকাতা। নিলামে এঁদের জন্য কেকেআর ঝাঁপাবে কিনা, সেটাই দেখার।

রাজস্থান রয়্যালস রাখল সঞ্জু স্যামসন (১৪ কোটি টাকা), জস বাটলার (১০ কোটি টাকা), যশস্বী জয়সওয়ালকে (৪ কোটি টাকা)। নিলামে তাদের হাতে থাকবে আরো ৬২ কোটি টাকা।