বগুড়া অফিস : অবশেষে এক বছর পর বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে করোনা রোগীদের নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেন সরবরাহের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় অক্সিজেন সরবরাহ শুরু হয়েছে। ১৬ হাজার লিটার ধারণ ক্ষমতার সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই কেন্দ্রে আপাতত ৩ হাজার লিটার দিয়ে চালু করা হয়েছে।

বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক। এ সময় বগুড়ার এসপি আলী অশরাফ ভ‍ূইয়া, সিভিল সার্জন ডাঃ গওসুল আজিম চৌধুরী, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ সামির হোসেন মিশু, মোহাম্মদ আলী হাপসাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ এটিএম নুরুজ্জামান সন্জয়, দুই আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শফিক আমিন কাজল ও ডাঃ খায়রুল বাশার মোমিন।

এর সঙ্গে মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে করোনায় মূমুর্ষু রোগীদের হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলার করোনা রোগীদের অক্সিজেন প্রবাহ বাড়ানো যাবে।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতলের তত্বাবধায়ক এ টি এম নুরুজ্জামান জানান, এর মাধ্যমে ২২৩ জন করোনাসহ অন্যান্য জরুরী রোগী বা শ্বাসকষ্টের রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ করা যাবে। হাসপাতালে ১১৬টি করোনা বেড, ১০৮ টি সাধারণ বেড এবং ৮টি আইসিইউ বেড রয়েছে। তবে হাসপাতালের অবশিষ্ট বেড গাইনী ওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহৃত হবে। গত ২৭ এপ্রিল এখানে সাধারন ওয়ার্ডে ৬৮জন ও আইসিইউ তে ৩জন করোনা রোগী ভর্তি ছিল।

উল্লেখ্য, আইসিইউতে হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলা মাধ্যমে করোনার সংকটাপন্ন রোগীদের অক্সিজেন সেবা দেয়া সম্ভব হবে। গত ২২ ডিসেম্বরে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় সেন্ট্রাল অক্সিজেন সিসটেম এর কার্যাদেশ পায়।

এতে ব্যয় হয়েছে কোটি ৮৮ লাখ টাকা। ফেব্রুয়ারি মাসে কাজ শেষ করার কথা থাকলেও তা এপ্রিল মাসে এসে কাজ শেষ হয়। এর মাধ্যমে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে কিছুটা চাপ কমবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।