খোলাবার্তা২৪ ডেস্ক : মায়ানমারের প্রাক্তন শাসক অং সান সুচিকে দুর্নীতির অভিযোগে বুধবার পাঁচ বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল সে দেশের এক আদালত। নোবেলজয়ী এই রাজনীতিক অবশ্য তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। বুধবার এই রায়ের কথা প্রকাশ্যে আসে বিচার বিভাগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তির মাধ্যমে।

ইতিমধ্যেই তিনি এক মামলায় ছয় বছরের কারাদণ্ড ভোগ করছেন। তার বিরুদ্ধে রয়েছে আরো ১০টি দুর্নীতির অভিযোগ। যার জন্য তার আরো ১৫ বছর কারাদণ্ড এবং জরিমানা হতে পারে।

সুচির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি রাজনৈতিক একটি দলের থেকে প্রচুর সোনা এবং ডলার ঘুষ হিসেবে নিয়েছেন।

গতবছরই সুচিকে ক্ষমতাচ্যুত করে সে দেশের ক্ষমতা সেনাবাহিনী দখল করে।সুচির সমর্থক এবং আইন বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচিত ৭৬ বছর বয়সি সুচিকে অন্যায় ভাবে ক্ষমতাচ্যুত করার বিষয়টিকে বৈধতা দিতেই এই পদক্ষেপ।

গতবছরই সুচিকে ক্ষমতাচ্যুত করে সে দেশের ক্ষমতা সেনাবাহিনী দখল করে। সুচির সমর্থক এবং আইন বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচিত ৭৬ বছর বয়সি সুচিকে অন্যায় ভাবে ক্ষমতাচ্যুত করার বিষয়টিকে বৈধতা দিতেই এই পদক্ষেপ।

২০২০ সালে সুচির ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি পার্টি বিপুল ভোটে জয়ী হয়। ২০২১ সালের পয়লা ফেব্রুয়ারি সে দেশের সেনাবাহিনী সুচি ও তাঁর সহযোগী দলীয় নেতাদের গ্রেফতার করে। সেই থেকেই তিনি বন্দিদশা কাটাচ্ছেন।